Facts

চীন সম্বন্ধে এই তথ্যগুলো জানলে আপনি অবাক হবেন..!!

আপনি কি জানেন, ৩০ আগস্ট ২০২১ঃ

চীন সম্পর্কে আজব ও মজার তথ্য:

1)বেইজিংয়ের দূষিত পরিবেশ

চীনের পরিবেশ কতটা দূষিত তা জানলে আপনি চমকে উঠতেই পারেন। চীনের রাজধানী বেইজিংয়ের আবহাওয়ায় সারাদিন ছিলেন?

তাহলে জেনে নিন আপনি সারাদিন ২১টি সিগারেট যে পরিমাণ বায়ু দূষণ করে ঠিক সেই পরিমাণ দূষিত বাতাসে ডুবে ছিলেন।

গ্রেট চায়না’র তথ্য থেকে জানা যায়, চীনের দূষণ মহাকাশ থেকেও দেখা যায়! জানেন কী চীনের ৯০% জল বিষাক্ত!

টিভি বা ছবিতে লক্ষ করলে দেখা যায় চীনের অধিবাসীরা অনেকেই মুখে মাস্ক পড়েছেন (করোনা ভাইরাস আসার আগেও)। এর কারণ হচ্ছে ঐ স্থানের আবহাওয়ার দূষণমাত্রা অত্যাধিক।

2)প্রস্রাবের মধ্যে সিদ্ধ করা ডিম খাওয়া

চীন সম্পর্কে একটি কথা প্রচলিত আছে। তা হচ্ছে- “ চীনারা টেবিল-চেয়ার ছেড়ে চার পদের খাবার খায়”।

অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি যে, চীনের অধিবাসীরা অবিবাহিত ছেলেদের প্রস্রাবে সিদ্ধ করা ডিম খায়!

এই প্রথা হাজার বছর ধরে প্রচলিত আছে। স্থানীয় স্কুল থেকে তারা প্রস্রাব সংগ্রহ করে।

বিশ্বাস করা হয়, এই ডিম খেলে কোমর, পা এবং জয়েন্ট বা অস্থি-সন্ধির ব্যথা সেড়ে যায়।

সেইসাথে শরীরে পুরোদিন শক্তি সঞ্চিত থাকে। এছাড়াও এজন্য তারা আরশোলা, ইঁদুর, কুকুর, বানর, বিড়াল, বাদুড়, সাপ, কুমির আরও না জানি কত কি খেয়ে থাকে।

3)মৃত্যুদণ্ড দেয়ার পূর্বে ভ্রাম্যমান গাড়ি ব্যবহার

চীনের জেলখানায় এমন একটি আশ্চর্যজনক নিয়ম চালু আছে যেখানে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামীকে ভ্রাম্যমান গাড়িতে করে প্রদর্শন করা হয়!

বলা হয় এতে কতজন আসামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হল তা জনগন জানতে পারবে।

তবে অনেকের ধারণা, সাজাপ্রাপ্ত আসামীদের সঠিক সংখ্যা জানানোর জন্য এটি একটি আইওয়াস মাত্র।

কারণ তারা যতজন আসামীকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করে তার থেকে কম সংখ্যক প্রদর্শন করে।

হিউম্যান রাইটস’র তথ্য অনুসারে, চীনে প্রতি বছর হাজারের অধিক লোককে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়।

মাদক চোরাচালান, কোনকিছুতে ভেজাল দেয়া বা দূর্নীতি করলেও মৃত্যুদণ্ড দেয়া হতে পারে।

আগে চীনে ফায়ারিং স্কোয়াড কর্তৃক গুলি করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলেও বর্তমানে বিষাক্ত ইঞ্জেকশন ব্যবহার করা হয়।

4) সৈনিকদের ঘাড়ে পিন লাগানো

চীনের আর্মি হচ্ছে বিশ্বের সবথেকে বড় বাহিনী। আমেরিকার প্রতিরক্ষা বাজেটের পরই চীনের সেনাদের বাজেটের স্থান। জানা যায়, এই পরিমাণ হচ্ছে ২০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার!

চীনের আর্মিদের অনেক কঠিন প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রশিক্ষণের সময় নতুন সৈনিকদের কলারে পিন লাগিয়ে দেয়া হয়! এতে তাদের ঘাড় বাঁকা করার সুযোগ থাকে না।

কুকুর ছাড়াও চীনা আর্মিরা বানর, হাঁস এবং পায়রাকেও প্রশিক্ষিত করে তোলে।

তারা ১০ হাজারের অধিক পায়রাকে সংবাদ আদান-প্রদানের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। যাতে আধুনিক প্রযুক্তি কোন কারণে ব্যর্থ হলে এগুলি ব্যবহার করা যায়।

5) ১০ দিনব্যাপী যানজট

জনসংখ্যার আধিক্যের কারণে চীনে যানবাহনের সংখ্যাও অনেক বেশি। ২০১০ সালের আগস্ট মাসে বেইজিং-তিব্বত হাইওয়েতে সবচেয়ে লম্বা যানজটের সৃষ্টি হয়।

৯৯ কিলোমিটারের একটি জট ১০দিন পর্যন্ত স্থায়ী হয়েছিল। জট খোলার পরও চলাচল স্বাভাবিক হতে আরো ৫দিন পর্যন্ত সময় লেগেছিল।

চীন বর্তমানে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য আলাদা রাস্তা তৈরি করেছে। যাতে পায়ে চলার পথে ফোন ব্যবহার করার সময় দূর্ঘটনার কবলে না পড়ে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!